May 28, 2024, 4:26 am

শ্রমিকদের বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

Reporter Name
  • আপডেট Monday, April 3, 2023
  • 218 জন দেখেছে

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর :: গাজীপুর মহানগরীর কোনোবাড়ি থানাধীন জরুন এলাকার কেয়া নীট কম্পোজিট লিমিটেড কারখানার শ্রমিকরা বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করেছে। এছাড়াও কিছু শ্রমিক উত্তেজিত হয়ে কারখানার বেশ কিছু গ্লাস ভাংচুর করেছে। শ্রমিকদের দুই মাস ও স্টাফদের তিন মাসের বকেয়া বেতনের দাবিতে রোববার রাতে আন্দোলন ও বিক্ষোভ করে শ্রমিকরা। বেতন না পেয়ে আজ সোমবার সকাল থেকে ওই কারখানার শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করেছে। এসময়ে উত্তেজিত শ্রমিকরা কোনাবাড়ি-জিরাব আঞ্চলিক সড়কে অবস্থান নিয়ে অবরোধ সৃষ্টি করে। এতে বন্ধ রয়েছে যানচলাচল।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কারখানার শ্রমিকরা জানান, গাজীপুরের জরুন এলাকায় কেয়া নীট কম্পোজিট লিমিটেড কারখানায় তিন শিফটে প্রায় সাত হাজার শ্রমিক কাজ করেন। এছাড়া স্টাফ রয়েছে শতাধীক। স্টাফদের বেতন বকেয়া তিন মাসের। কারখানার শ্রমিকরা বেতন পাবে গত ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসের। গত বৃহস্পতিবার শ্রমিকদের বেতন দেয়ার কথা থাকলেও কারখানা কর্তৃপক্ষ দেই দিচ্ছি বলে কালক্ষেপন করে। পরে তারা গত রোববার বেতন দেয়ার কথা জানায়। দিন পেরিয়ে রাত হয়ে গেলেও বেতন না পেয়ে শ্রমিকরা ওইদিন রাতেও কারখানায় বিক্ষোভ করে। তারই ধারিবাহিকতায় সোমবার সকাল ৭টা থেকে শ্রমিকদের একটি গ্রুপ কারখানার বাহিরে কোনোবাড়ি-জিরাব অঞ্চলিক সড়কে অবস্থান নিয়ে অবরোধ সৃষ্টি করে। এতে উভয়দিকে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। একই সময়ে শ্রমিকদের আরোকটি গ্রুপ কারখানার ভেতরে কাজ বন্ধ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। কারখানার কর্মকর্তা সুমন আহমেদ জানান, সোমবার বিকেলের মধ্যে বেতন দেয়া হবে। শ্রমিকরা ফেব্রুয়ারি মাসের বেতন পাবে। মার্চ মাসের বেতন দেয়ার সময় এখনও হয়নি।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন কোনাবাড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আশরাফ বলেন, বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকরা কারখানার সামনে অবস্থানিয়ে সড়ক অবরোধ করে রেখেছে। রোববার রাতেও তারা বিক্ষোভ করেছেন। আমরা তাদের বুঝানোর চেস্টা করছি। মালিকের সাথে কথা হয়েছে তিনি বেতন পরিশোধের আশ্বাস দিয়েছেন। বিকেল ৫টার দিকে ও বেতন দেয়া হয়নি। শ্রমিকরা বেতনের জন্য অপেক্ষা করছে।

সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই সম্পর্কিত আরও খবর