July 16, 2024, 8:38 am

ঢাকা-১৮ আসনের মানুষের দুঃখ-দুর্দশা দূর করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন সংসদ সদস্য খসরু চৌধুরী

Reporter Name
  • আপডেট Saturday, July 6, 2024
  • 22 জন দেখেছে

এস.এম বিজয় চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টার, উত্তরা :: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর মো. খসরু চৌধুরী এলাকার উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা পালন করছেন। তিনি ঢাকা-১৮ আসনের ভাঙাচোরা রাস্তার সংস্কারে পর্যাপ্ত বরাদ্দ চেয়েছেন। দ্রুত রাস্তা মেরামতে বরাদ্দ পাস করাতে দৌড়ঝাঁপ করেছেন সচিবালয় ও নগর ভবনে। এছাড়া ঢাকা-১৮ আসনভুক্ত এলাকার হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফের দাবিতে সংসদে একাধিকবার বক্তব্য দিয়েছেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে খসরু চৌধুরী ঘোষণা দিয়েছিলেন, তিনি নির্বাচিত হলে তার প্রথম কাজ হবে সিটি কর্পোরেশনের সঙ্গে সমন্বয় করে স্বল্প সময়ের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা। তারই ধারাবাহিকতায় তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েই ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলরদের সঙ্গে সমন্বয় করে উন্নয়ন কাজ শুরু করেছেন। বর্তমান ঢাকা-১৮ আসনে ১০০টিরও অধিক রাস্তার কাজ চলমান রয়েছে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রীসহ বিভিন্ন দপ্তরের সাথে তিনি কথা বলে নতুন নতুন আরও কিছু উন্নয়নমূলক কাজ শুরু করার চেষ্টা করছেন।
উত্তরখান ও দক্ষিণখান এলাকায় গ্যাস সংকট চরমে। খসরু চৌধুরী এমপি হওয়ার পর গ্যাস পাইপ লাইন সংস্কারের মাধ্যমে গ্যাস সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করেছেন।
ঢাকা-১৮ আসনকে সন্ত্রাস, মাদক ও চাঁদাবাজমুক্ত করতে কাজ করছেন তিনি। তিনি প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করেছেন। বেশ কয়েকটি স্পটকে চাঁদামুক্ত করেছেন। অটো-লেগুনার চাঁদা বন্ধ করেছেন। যানবাহন থেকে সব ধরনের চাঁদাবাজি বন্ধ করা হয়েছে। যারা এসব অবৈধ কাজে জড়িত, দল-মত-নির্বিশেষে তাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দেখিয়ে আইনগত কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তিনি স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন।
জাতীয় সংসদে দেওয়া প্রতিটি বক্তব্যে খসরু চৌধুরী অবহেলিত ঢাকা-১৮ আসনের উন্নয়নে পর্যাপ্ত বরাদ্দ চেয়েছেন। ২০১৮ সাল থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত ঢাকা-১৮ আসনের নাগরিকদের কর ও হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফ করার বিষয়ে একাধিকবার মাননীয় স্পিকার, অর্থমন্ত্রী ও স্থানীয় সরকারমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (স্থানীয় সরকার বিভাগ) মন্ত্রীর কাছে ঢাকা-১৮ আসনের রাস্তাগুলোর কাজ কবে নাগাদ শেষ হবে সেটি জানতে চেয়েছিলেন। উত্তরে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম জানিয়েছেন, ঢাকা-১৮ আসনের ইউনিয়ন হতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে সংযুক্ত ওয়ার্ডসমূহের (ওয়ার্ড নং-৪৪, ৪৫, ৪৬, ৫১, ৫২, ৫৩ ও ৫৪) ‘নতুনভাবে অন্তর্ভুক্ত ১৮টি ওয়ার্ড উন্নয়ন’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২৪ ইসিবি কর্তৃক রাস্তা উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। উক্ত কাজগুলো আগামী নভেম্বর ২০২৪-এর মধ্যে সম্পন্ন করার পরিকল্পনা রয়েছে।
এছাড়াও ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অঞ্চল-৭ এ সংযুক্ত ওয়ার্ডসমূহ (ওয়ার্ড নং- ৪৭, ৪৮, ৪৯ ও ৫০) এর ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাসমূহ উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ওয়ার্ডগুলোর উন্নয়ন কাজ ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৪ তারিখের মধ্যে সম্পন্ন করার পরিকল্পনা রয়েছে।
মো. খসরু চৌধুরী এমপির কার্যক্রম মূল্যায়ন করতে গিয়ে বৃহত্তর উত্তরা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উত্তরখান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান মিলন বলেন, বিগত বছরগুলোতে ঢাকা-১৮ আসন ছিল উন্নয়ন বঞ্চিত। তবে খসরু চৌধুরী ঢাকা-১৮ আসনের মানুষের দুঃখ-দুর্দশা দূর করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।
ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী সালাউদ্দিন পিন্টু বলেন, এমপি নির্বাচিত হওয়ার আগে খসরু চৌধুরী যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তিনি তা বাস্তবায়ন করতে কাজ করছেন। তিনি ৫ বছর তথা ৬০ মাসের জন্য এমপি নির্বাচিত হয়েছেন। মাত্র ৬ মাস অতিবাহিত হয়েছে সামনে রয়েছে ৫৪ মাস। তিনি আগে এমপি না হয়েও মানুষের জন্য কাজ করেছেন। এখন এমপি হয়ে দিনের পুরোটা সময়ই মানুষের জন্য কাজ করছেন। তিনি যে ইশতেহার দিয়েছেন তা শতভাগ বাস্তবায়ন হবে ইনশাআল্লাহ।

সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই সম্পর্কিত আরও খবর