May 28, 2024, 3:17 am

বৈশাখী উৎসবে গুণী শিল্পীদের সম্মাননা প্রদান

Reporter Name
  • আপডেট Sunday, April 21, 2024
  • 22 জন দেখেছে

বিনোদন প্রতিবেদক :: আয়োজনের নাম ছিল ‘বৈশাখী উৎসব’। আয়োজক ছিল দেশের ছোট পর্দার অভিনয়শিল্পীদের সংগঠন অভিনয়শিল্পী সংঘ। গতকাল ঢাকার অদূরে দিনব্যাপী এই আয়োজনে অংশ নিয়েছিলেন হাজারখানেক অভিনয়শিল্পী। সারা দিন সাধারণ সভার পাশাপাশি ছিল মধ্যাহ্ন ভোজ। তবে এসব ছাপিয়ে দুটি খবর ছিল আলোচনায়। তার একটি হলো, ১০ জন গুণী শিল্পীকে সম্মাননা দিয়েছে অভিনয়শিল্পী সংঘ। যাঁরা গত বছর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন, পেয়েছেন একুশে পদক ও দেশের বাইরে পুরস্কার পেয়ে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন তাঁদের সবাইকে সম্মাননা দিয়েছে অভিনয়শিল্পী সংঘ।
জানা যায়, এ তালিকায় আছেন অভিনেত্রী রোজিনা, ডলি জহুর, জয়া আহসান, নাসিরউদ্দিন খান, আফসানা মিমি, এস এ হক অলীক, শুভাশিস ভৌমিক, দীপু ইমাম। তবে দেশের বাইরে থাকায় আলমগীর, চঞ্চল চৌধুরী সরাসরি সম্মাননা নিতে পারেননি।
পুরস্কার পেয়ে স্বাভাবিকভাবে আপ্লুত ছিলেন জয়া আহসান। তিনি বলেন, ‘আমার এখনো মনে পড়ে আমার করা সেসব ধারাবাহিকের কথা। মাঝেমধ্যে খুব ইচ্ছে করে সেসব দিনে ফিরে যাই। আমি হয়তো এখন টালিউডে, বলিউডে কাজ করছি; কিন্তু আমার অভিনয়ের শিকড় এখানেই।’
সম্মাননা পেয়ে নিয়ে নাসির উদ্দিন খান বলেন, ‘যেকোনো পুরস্কার কাজের আনন্দ বাড়িয়ে দেয়। আর নিজেদের মানুষের কাছ থেকে পাওয়া পুরস্কার এটার আবেগ অন্য রকম।’ দিনব্যাপী এই তারার মেলায় আরো একটি ঘটনা ছিল আলোচনায়। সেটি হলো, সাধারণ সভায় জানানো হয়, অভিনয়শিল্পী সংঘের বর্তমান কমিটির আবেদনের প্রেক্ষিতে সরকারের কাছ থেকে সাড়ে তিন কাঠা বরাদ্দ পেয়েছে। যেটি এখন প্রক্রিয়াধীন।
বিষয়টি নিয়ে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক রওনক হাসান  বলেন, ‘আমরা আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী সরকারের কাছে আবেদন করেছিলাম। সেটাতে সাড়া দিয়ে সরকার আমাদের জন্য রাজধানীর আফতাব নগরে সাড়ে তিন কাঠা জায়গা বরাদ্দ করেছেন। আমরা এরই মধ্যে টাকা জমা দিয়েছি। খুব দ্রুত সেটি বুঝে পাব আশা করছি।’
তিনি জানান, সেখানে শিল্পী সংঘের জন্য অনেক কিছু করার পরিকল্পনা করে রেখেছেন। অ্যাক্টিং স্কুল থেকে বুক ক্যাফে এবং অ্যাক্টসর ওল্ড হোমও করতে চান তাঁরা।
আয়োজনে বিষয়টি ঘোষণার সময় এক আবেগঘন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় জানিয়ে রওনক বলেন, ‘আমারই ঘোষণা করার কথা ছিল। শুরুও করেছিলাম। কিন্তু শেষ করতে পারিনি। আবেগে চোখে পানি চলে এসেছিল। বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছিলাম। আসলে এটা আমাদের জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি। তাই অনেক বেশি আবেগ কাজ করেছে। পরে আমাদের সভাপতি (আহসান হাবিব নাসিম) এসে ঘোষণাটি শেষ করেন। ঘোষণা শেষ হলে উপস্থিত সবাই দাঁড়িয়ে আমাদের অভিবাদন জানান। কমিটির একজন হিসেবে আমার জন্য এটি আনন্দ ও গর্বের।’

সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই সম্পর্কিত আরও খবর